Sunday, June 14, 2020

সুশান্ত, তোমার মৃত্যু আমাকে অপরাধী করে দেয়




কোনও কোনও মৃত্যু ফুটে ওঠে

হাসনুহানার মতো

কান্নাকাটির রঙে সে আরও শুভ্র হয়ে ওঠে।

 

কোনও কোনও মৃত্যু

এক পশলা বৃষ্টির স্বস্তির পর

আবার শূন্যতার দুঃসহ গ্রীষ্ম।

 

কোনও কোনও মৃত্যুর পর

দেশ যেন আগ্নেয়গিরি।

 

কিন্তু

 

কোনও কোনও মৃত্যুর পর

শিরদাঁড়া দিয়ে বয়ে যায় বিপাশার শীতল জল

মনে পড়ে

কোন কোন বন্ধুর খোঁজ নিইনি

 

ঠিক কতদিন

 

 

 

স্কেচঃ দেবাশিস সাহা


50 comments:

  1. Replies
    1. কষ্টে লেখা।

      Delete
    2. দুটো শব্দ | শূন্যতা | তবু ওরা বুঝবে না।

      Delete
  2. কঠিন উপলব্ধি...

    ReplyDelete
  3. কারোর কিছু করার নেই এই সমাজ অপমানে অপমানে শেষ করে দেয়।

    ReplyDelete
    Replies
    1. এইভাবে ভেবো না।

      Delete
    2. সব কিছুতেই আমরা শুধু সমাজের দোষ দেখি, কিন্তু আমরা কেউ সমাজের বাইরে নই, বরঞ্চ আমরাই সমাজ ! সমাজ বলতে আমরা যা বুঝি তার একমাত্র বা প্রধান উপকরণ মানুষ, মানুষই অপমান করে - মানুষই শেষ হয় ... আমরা 'সমাজ' নামক প্রতিষ্ঠানের আড়ালে নিজেদেরকে লুকোবার বৃথা চেষ্টা করি মাত্র !

      Delete
  4. দুর্দিনে বন্ধুকেই মনে পড়ে আগে। মন খুলে কথা বললে সব সমস্যার সমাধান হয়ে যায়। কথা বলাটা খুব দরকার।

    ReplyDelete
  5. খোঁজ নিতে, প্রাণ খুলে কথা বলতে, কথা শুনতে আমরা ভুলে গেছি তো

    ReplyDelete
    Replies
    1. খুব সত্যি কথা ! প্রাণ খুলে কথা বলতে ভুলে গেছি, আবার সেটার জন্য মানুষ পাওয়া খুব দুস্কর হয়ে গেছে, আমাদের দৈনন্দিন জীবনযাত্রা যে জটিলতায় পৌঁছেছে সেখানে অনেক সময় ইচ্ছা থাকলেও ২৪ ঘন্টার ফেরে সম্ভব হয়না, আমরা আসলে নিজেদেরকে নিয়েই বড্ডো বেশি ব্যস্ত হয়ে গেছি ! পরিবর্তন দরকার !

      Delete
  6. Aami kintu aar bhay pai na (ek samay petam). Aamaar kaachhe ei prithibite thaka shref samay katano... Tatpar Furut kare chale jaoya...

    ReplyDelete
    Replies
    1. একথা সত্যি যে, জীবন অনিশ্চিত। কিন্তু নিজের হাতে জীবন শেষ করে দেওয়া অনুচিত।

      Delete
    2. Thik balechho... Tai jato ta Damn care ba nirlipto thaka jay

      Delete
  7. Kathin satto.mon kharaper bachor.valo theko.valo rekho

    ReplyDelete
  8. আত্মহত্যা করার থেকে বেঁচে থাকতেই বোধয় শক্তি বেশি লাগে!

    ReplyDelete
    Replies
    1. হতে পারে। কিন্তু লড়াই ছাড়া তো উচিত নয়, তাই না?

      Delete
  9. মর্মমূলে বিদ্যুৎ বয়ে গেল।

    ReplyDelete
  10. কতো কথা রয়ে যায় বাকী!

    ReplyDelete
  11. অর্থ, যশকে ছাপিয়ে কি এক মানসিক অবসাদ যে তাড়িয়ে চলে এইসব নক্ষত্রদের... এর থেকে মুক্তির পথ কি শুধুই মৃত্যু? আর কোনো পথ কি বাকি ছিল না? অর্থ আর সাফল্য তবে কি সত্যিই মানুষকে একা করে দিয়ে যায়?

    ReplyDelete
  12. !! মৃত‍্যুঞ্জয় নেই আর !!
    -ব্রজকিশোর রজক

    পৃথিবীতে মৃত‍্যুঞ্জয় নেই আর;
    পৃথিবীতে কান্নাও একটা ঘটনা এখন।
    তবুও নিয়ম ভেঙে উড়িয়ে দেওয়া হয় পাখি...

    ঝুলে যায় তাজা প্রাণখানি,
    শুধু ভালো থাকা ভালো থাকা নয়,
    কখনো কখনো মন্দেও ভালো লাগা জড়ানো থেকে যায়।
    আর সেটুকুই ভুল বুঝে নিয়ে, সূর্যাস্ত হয়।

    মেঘে মেঘে শেষ হয় দিন;

    অথচ অনেকগুলো হাত তখনও বাড়ানো,
    অনেকগুলো চোখ চেয়ে থাকে,
    অনেকগুলো মন স্বপ্ন দেখে ফেলে।

    শুধু দিনটি হারিয়ে যাবার আগে যদি আরও একবার
    ঝলমলে রোদ হেসে ওঠে!

    হাসবে না আর, কাঁদবে না সে
    রাত্রি নামার সাথে নেমে গেছে শীতল এক ঘুম।।

    ReplyDelete
  13. শান্ত একটা লেখা। অথচ এই লেখার প্রত্যেক অক্ষরে এত যন্ত্রণা! বিপন্ন মনে হচ্ছে

    ReplyDelete
  14. এই লেখার প্রতিটি শব্দ মিলেমিশে যেন ব্যথার শান্ত নদী আর সেই নদীর জলে মিশে যাচ্ছে সকলের ব্যথা বেদনার অনুভব।।

    ReplyDelete
  15. অনুভূতিগুলো সবই বেজে ওঠে
    ভাবের ঘরে... একতারাতে,
    কিন্তু সঠিক সুরে সুর-মেলানো আর হয় না !

    কী সুন্দর যে লিখেছেন, মুগ্ধ হলাম।

    ReplyDelete
  16. ভাসিয়ে দিলে দাদা ।

    ReplyDelete
  17. খুব কষ্টেমাখা ভালোলাগা:কবিরও, পাঠকেরোও

    ReplyDelete
  18. খোঁজ নিতে হবে।খোঁজ নেওয়া জরুরি। গলা ভারি হয়ে আসা লেখা স্যার।

    ReplyDelete
    Replies
    1. নেওয়া দরকার। সত্যিই।

      Delete
  19. অংশুমান দা, বড্ডো মন খারাপের সময়, অক্ষরে অক্ষরে বেদনা-ঝরা কবিতা, সবাই ভালো থাকুন, শুধু ভালো নয়, সবাই আনন্দে থাকুন, এই কামনা করি...

    ReplyDelete
  20. ওই ঘটনাটা, আর লেখাটা পড়ে এমন এক জায়গায় আঘাত লাগলো, খোঁজ নিলামক বেশ কয়েকজন বন্ধুর, যাদের খোঁজ নেয়া হয়নি অনেক মাস... কোথাও আমাদের আত্মকেন্দ্রিকতা থেকে বেরিয়ে এসে একটু আশপাশের মানুষ গুলো কেউ দেখা উচিত বুঝলাম।

    ReplyDelete
  21. মনে করিয়ে দিলো আমার নিকট আত্মিয়, বন্ধু-প্রতিবেশী দেড় কথা, যাদের খোঁজ আমি নেই নি বহু দিন । অথচ তারা সবাই থাকে আসে পাশেই - কি এক অদ্ভুত দূরত্বে রয়েছি আমরা ( তাও আবার এই ডিজিটাল কমুনিকেশনের যুগে )! - Just shows that it is not time or distance that separates but our self-seeking priorities.

    ReplyDelete
  22. সত্যি ওর আত্মহত্যা আমাদের অপরাধী করে দেই, আমরাও ওই সমাজ এরই একটা অংশ যে সমাজ ওর জীবন নিয়ে নিলো...

    ReplyDelete

রাজকল্যাণ চেল: বাংলা কবিতার আন্তর্জাতিক স্বর

বাংলা কবিতা থেকে এক রকম স্বেচ্ছা নির্বাসনই নিয়েছেন রাজকল্যাণ চেল। ক্বচিৎ কখনও একটি-দু’টি পত্রিকায় তাঁর লেখা হঠাৎ হঠাৎ দেখতে পাওয়া যায়। কিন্ত...